ঘরে বসে অনলাইন ব্যবসায় নারীদের অনুপ্রেরণা জোগবে কোহেলী হক

ঘরে বসে অনলাইন ব্যবসায় নারীদের  অনুপ্রেরণা জোগবে কোহেলী হক

আহসান উল্লাহ :
দেশের নারীরা শিক্ষাজীবন শেষ করে সফলভাবে কর্মজীবন শুরু করেও নানা প্রতিবন্ধকতায় অনেক নারীই কর্মস্থল থেকে ছিটকে পড়ে। নানাভাবে নানা দিক থেকেই আসে প্রতিবন্ধকতা । পরিবার, সমাজ এবং কর্মক্ষেত্র সব যায়গায় নারীকে মুখোমুখি হতে হয় নানা বাধা বিপত্তির। কিন্তু সব প্রতিবন্ধকতা পার হয়ে এখন অধিকাংশ নারীই এগিয়ে যাচ্ছে। আর যারা পথ হারিয়ে কর্মস্থল থেকে ঝরে সংসারবন্দি হয়ে পড়ছেন তাদের জন্য স্বনামধন্য “মাছে ভাতে বাঙগালীয়ানা” কোহেলীর স্বপ্ন পুরন এর স্বত্ত্বাধিকারি কোহেলী হক হচ্ছেন অনুপ্রেরণা। কুমিল্লার লাকসাম পৌরশহরে ফতেপুর গ্রামে বর্তমানে তার অবস্থান স্বামীর বাড়ি চট্টগ্রামে দু’এলাকার কোহেলী হক এমনই একজন নারী, যিনি বর্তমানে একজন সফল উদ্যোক্তা হিসাবে পরিচিত। তার সাথে আলাপ খবর তরঙ্গ ডটকমের উপদেষ্টা ও কোহেলী হকের চাচাত ভাই ইকবাল হোসেনের পরিচয় সুত্র দরে। তিনি জানান তাঁর সফলতার গল্প।

এই সফল উদ্যোক্তা হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ার পেছনে রয়েছে তার নিজের পরিশ্রম এবং এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়। পথে পথে নানা প্রতিবন্ধকতা মোকাবেলা করতে হয়েছে কোহেলী হককে, তবে কখনোই দমে যাননি তিনি। নিজের মেধা, মননশীলতা, কর্মনিষ্ঠা এবং একাগ্র প্রচেষ্টার মাধ্যমে প্রতিনিয়ত এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন তিনি।

২০১৯ সালে স্বামী মোঃ এনামুল হক ও তার ভাই ইকবাল হোসেনের সহযোগিতা এবং সাহস নিয়ে স্বামী সংসার ঠিক রেখে যাত্রা শুরু করে তরুণ উদোক্তা কোহেলি হক। ফেসবুকে একটি মাছে ভাতে বাঙালিয়ানা পেজ খুলে ঘরে বসেই বিভিন্ন ব্যক্তিদের সাথে অনলাইন ব্যবসা শুরু করেন কোহেলীর স্বপ্ন পূরন ফেসবুক।

কোহেলি হক ১৯৮৬ সালের ২৫ এপ্রিল লাকসাম পৌরশহরে ফতেপুর গ্রামে পিতৃভূমিতে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা মৃত দেলোয়ার হোসেন, তিনি ও একজন বিশিষ্ট ব্যবসায়ীক ছিলেন আর মা শামসুন্নাহার বেগম ছিলেন গৃহিণী। কোহেলি হক ১৯৯২সালে দৌলতগন্জ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়া লেখা শুরু করে পরে পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস এস সি পাশ করে নবাব ফয়জুন্নেসা সরকারি কলেজে ভর্তি হন এইচএসসি পরীক্ষার সময় ২০০৬ সালে বিয়ের বেড়াজালে আটকে পড়েন কোহেলি হক। ফলে থমকে যায় তার শিক্ষাজীবন। বৈবাহিক জীবনে তাদের দুই সন্তান রয়েছে স্বামী আর দুই সন্তানকে নিয়ে সুখেই দিনতিপাত করছেন তারা। তার স্বামী মোঃ এনামুল হক একজন দেশ-বিদেশে শিপের ব্যবসা করছেন। ই কমাসোর্ধর ম্যমে কোহেলী হক ঘরে বসে ও অনলাইন ব্যবসা করে মালা-মাল সঠিক সময়ে দেশ-বিদেশে সুনামের সহিত পৌঁছে দিয়ে অনলাই ব্যবাসায় ১ বছরের মধ্যেই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন।

তিনি জানান, এই সফল উদ্যোক্তা হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ার পেছনে রয়েছে তার নিজের পরিশ্রম এবং এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়। ক্রেতাদের চাহিদা ও প্রশংসা দেখে আমার মনোবল এবং কাজ করার আগ্রহ আরো বেড়ে যায়।

একজন সংগ্রামী সফল নারী উদ্যোক্তা “মাছে ভাতে বাঙগালীয়ানা” কোহেলীর স্বপ্ন পুরন এ প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ইলিশ, রূপচান্দা, ছুরিমাছ, ম্যাকারেল, লইট্টা, খল্লা, লাখুয়া, কালিমা, ফাঁস্যা, করাতি চেলা, ঝধৎফরহব, ঢ়বষধমরপ ংযধৎশ, ংড়িৎফ ভরংয, ইড়হরঃড়, ঝশরঢ়লধপশ, ঞযৎবধফভরহ, ঝসবষঃ, ওহফরধহ ধহপযড়াু, উড়ৎধন ঐবৎৎরহম, ওহফরধহ ঝপধফ, ইড়হব ঋরংয ইত্যাদি মাছ বাংলাদেশ, ভারত, আমেরিকা, কানাডা ও সুইজারল্যান্ড সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে নিজ দ্বায়ীত্বে রপ্তানী করে থাকেন। এ ছাড়া ক্রেতাদের অনুরোধে সেপ্টেম্বরের প্রথম থেকে ছুরি, রুপচাঁদা, লইট্্রা, কোরাল,সুরমা, কাঁচকি,ফাঁইস্সা, লক্কো চাঁপাকলি,মইল্লা, কাবিলা, লবনে ইলিশ, চইক্কা, পোয়া সহ বিভিন্ন ধরনের শুটকি ও অনলাইনে বিক্রি শুরু করেছেন। এতে ব্যাপক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে।

মাত্র কয়েক হাজার টাকা পুঁজি নিয়ে “মাছে ভাতে বাঙগালীয়ানা” কোহেলীর স্বপ্ন পুরন অনলাইন ব্যবসা শুরু করেছিলেন। সেই ব্যবসার পরিধি বৃদ্ধি পেয়ে দেশের গন্ডি পেরিয়ে আর্ন্তজাতিক অঙ্গনে ও জায়গা করে নেয়। এ ছাড়াও তার এ প্রতিষ্ঠানে কর্মসংস্থানের সুযোগ পেয়েছেন ৮জন নারী পরুষ।

কোহিলী হক নিজস্ব আগ্রহ ও অভিজ্ঞতা ব্যবহার করে একটু একটু করে গড়ে তুলেছেন ক্রেতাবলয়, অর্জন করেছেন আস্থা। শুরুটা স্বাভাবিকভাবেই মসৃণ না হলেও ১ বছরে তাঁর প্রতিষ্ঠান “মাছে ভাতে বাঙগালীয়ানা” কোহেলীর স্বপ্ন পুরন পেরিয়েছে অনেক রন্ধুর পথ। শৈশব থেকেই তার ইচ্ছা ছিলো একদিন সফল ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিতি পাবেন এবং সমাজের অপরাধ, অসংগতিগুলো থেকে মানুষদের সঠিক পথে আনতে সহয়তা করবেন। কোহেলী হক দেশকে ভালোবাসতে চান এবং দেশের গরীব-দু:খী মানুষের জন্য কিছু করতে চান।

সম্পাদক ও প্রকাশক: মো: কামাল উদ্দিন
মোবাইল: ০১৮১৯০৩২০৯০
৬০/বি, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০ হইতে প্রকাশিত। মোবাইল: 01819032090, ইমেইল: amaderodhikar@gmail.com